নাজমুল হক, পঞ্চগড় সংবাদদাতাঃ দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলী ইউনয়নের হেদায়েতপুর গ্রামের দূরবর্তী একটি পুকুর থেকে এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ আজ বৃহস্পতিবার সকালে এলাকাবাসীর সংবাদের প্রেক্ষিতে পুলিশ উদ্ধার করেছে। মৃতের নাম কবিতা (১৪), পিতা রাজেন্দ্র নাথ।

সে পামুলী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। পামুলী ইউপি চেয়ারম্যান ফজলে হায়দার বাদশা বলেন, কবিতা গতকাল বুধবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলো, যা তার পরিবার জানিয়েছে। পরদিন সকালে পুকুরে লাশ ভাসছে প্রতিবেশিদের এমন খবর শুনে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে কবিতাকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় দেখতে পাই এবং তার মুখে রক্ত দেখা গেছে। চেয়ারম্যান ফজলে হায়দার বাদশার সন্দেহ যে, কবিতাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরুদ্ধ করে মেরে পুকুরে ফেলে দেয়া হয়েছে। মৃতের পরিবারও একই রকম সন্দেহের কথা প্রকাশ করেছেন। লাশ উদ্ধার করে থানায় আনার পর দেবীগঞ্জ থানার সাব-ইন্সপেক্টর আনোয়ার জানান, লাশের নাকের কাছে রক্ত ও মুখে ফেনা ছিলো, ওড়না শরীরে ছিল।

এ পর্যন্ত সুরতহাল রির্পোট শেষ করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত কেউ মামলা করেনি। তবে ভিকটিমের পরিবার যে ভাবে চাইবে মামলা সেভাবে করা হবে মর্মে সাব-ইন্সপেক্টর জানান।থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here