ব্যাকবেঞ্চার

-অংকন

0
323

ঘুমের তৃপ্তি এই তো শুরু
তখনই ঘড়ি শুরু করলো তার গান,
ঘড়ির এই নিষ্ঠুর গানে
আমি বালিশ চেপে বন্ধ করি আমার কান।
এইভাবেই চলতে থাকে ঘণ্টা খানিক
হুট করে মনে পড়ে,
আজ না প্রথম ক্লাস গণিত!
ঝড়ের বেগে বের হওয়ার সময়  মা এনে দেয় দুধ
রোজ রোজ আর ভালো লাগে না মা
দুধের গ্লাসের চুমুক।
এই বলে ছুটতে থাকি মা আমার পিছু পিছু বলে কথা তো শুন,
আমি বলি দেরি হয়েছে মা
এসে শুনবো সেই দুধের গুণাগুণ।
অবশেষে পোঁছে স্কুল গেটে
শুনি ক্লাস শুরুর ঘণ্টার শব্দ,
ভাবি আজ আর হবে না কারো সাথে
শেষ বেঞ্চ নিয়ে আমার দ্বন্দ্ব।
রুমের সামনে গিয়া দেখি স্যার আমার আগেই উপস্থিত,
শেষ বেঞ্চের শয়তান গুলা আমায় দেখে দিলো একহাসি কুৎসিত।
শুরু হয় এক রাশি বকা আর কিছু বেতের বাড়ি,
এরপর আমি শেষ বেঞ্চে উল্টে গিয়ে পড়ি।
ক্লাস শেষের ঘণ্টা বাজার পর নেচে উঠে আমাদের মনটা,
স্যার যাবে গান গাবো
আহ্ কি মজা।
গান শেষে মনে পরে এইবার আরেক ক্লাস শুরু হবার পালা,
যমের যম উচ্চতর গণিত
বুঝো এইবার ঠেলা।
আচমকা মনে পড়ে রেখে এসেছি প্র‍্যাকটিকাল খাতা,
ছিলো না মোর স্মরণ
এমন সময় মাথায় ঢুকে আমার
আম্মুর পিছু ডাকার কারণ।
আফসোস আর মনে খারাপ করে
যখন ফিরে যাই শেষ বেঞ্চে, আমার আস্থানায়
মন আবার চাঙ্গা হয় যখন শুনি আমার সামনের বেঞ্চেরটার প্র‍্যাকটিকাল খাতা সাইন হয় নাই।
অবশেষে বাজে ছুটির ঘণ্টা,
ফিরি বাড়ির পথে
কাল আবার আসব কিছু ইতিহাস গড়তে
আমার শেষ বেঞ্চিতে।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here