পঞ্চগড়-ঢাকা, বিলম্ব ছাড়াই যেভাবে চলবে আন্তঃনগর ট্রেন

0
4001

আন্তঃনগর একতা ও দ্রুতযান এক্সপ্রেস তিন রেক নিয়ে পঞ্চগড়-ঢাকা সরাসরি কিভাবে চলবে, কেন লেট হবেনা এবং পদ্ধতিটা কি!

প্রথমত রেক বলতে বুঝায় কোচের সেট, যেমন বর্তমানে একতায় ১৩ টি কোচ, ক থেকে ড পর্যন্ত। এই সেটটিকে বলা হয় একটি রেক।
বর্তমানে একতার একটি রেক (ক থেকে ড) এবং দ্রুতযানের একটি রেক (ক থেকে ড) আছে। ট্রেন দুটি পঞ্চগর গেলে পাবে নীল সাগরের রেক। তাহলে রেক হচ্ছে মোট তিনটি।

তিনটি রেকে কোনটিতেই শুধু মাত্র একতা বা শুধু মাত্র দ্রুতযান লেখা থাকবেনা। লেখা থাকবে
একতা/দ্রুতযান
পঞ্চগড়-ঢাকা-পঞ্চগড়
সুতরাং তিনটি রেকেই এ কথাটি লেখা থাকবে।

এখন আসুন তিনটি রেককে তিনটি নাম্বার দেই
রেক নং -১ (ক থেকে ড)
রেক নং -২ (ক থেকে ড)
রেক নং -৩ (ক থেকে ড)
(প্রতিটিতে একতা/দ্রুতযান লেখা থাকবে)

ধরুন আজ একতা ও দ্রুতযান চলবে।
রেক -১ ঢাকা থেকে সকাল ১০.০০ টায় আপ একতা হয়ে পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে ছাড়বে।
রেক-২ পঞ্চগড় থেকে সকাল ৭.২০ টায় দ্রুতযান হয়ে ছাড়বে।
রেক-৩ পঞ্চগড় ওয়াশপিটেই থাকবে রিজার্ভ রেক হিসেবে।

এখন আসুন,
রেক-১ একতা হিসেবে যেটি ঢাকায় ছাড়ল তা পঞ্চগড় পৌঁছাবে রাত ৯ টার দিকে৷ কিন্তু সে রেকটি যখনই আসুক সমস্যা নেই।
রেক-৩, যেটি পঞ্চগড়ে রিজার্ভ আছে সেটি রাত ৯.০০ টায় পঞ্চগড় থেকে একতা হয়ে যাত্রা শুরু করবে এবং রেক-১ যেটি ঢাকা থেকে আসবে সেটি পঞ্চগড়ের ওয়াশপিটে রিজার্ভ হিসেবে থাকবে।

এবার আসুন রেক-২ যেটি দ্রুতযান হয়ে ঢাকা গেল আজ, রাত ৮.০০ টায় ২ নং রেকটি ঢাকা কমলাপুর থেকে দ্রুতযান হয়েই পঞ্চগড়ে আবার ফেরত আসবে এবং পৌঁছাবে সকাল ৭.০০ টার দিকে।

২ নং রেক দ্রুতযান হয়ে যখনই আসুক, ১ নং রেক একতা হয়ে এসে যে রিজার্ভ হয়ে আছে ( যেহেতু ৩ নং টি একতা হয়ে গেছে)
সেটি সকাল ৭.২০ টায় পুনরায় দ্রুতযান হয়ে যাবে। এবং ২ নং রেকটি যা ঢাকা থেকে দ্রুতযান হয়ে আসছে তা আবার রিজার্ভ হয়ে থাকবে যা রাতে একতা হয়ে যাবে। এভাবে সবসময় একটি রেক প্রায় ১২-১৩ ঘন্টা পঞ্চগড়ে রেষ্টে থাকবে।
সুতরাং ঢাকা থেকে ট্রেন যখনই আসুক, একতা/দ্রুতযান ট্রেন পঞ্চগড় থেকে সময় মত ছাড়বে।

লেখক-
মোঃ কবির হোসেন,

ছবিঃ আসাদ উজ জামান

এডমিন
বাংলাদেশ রেলওয়ে বেনেভলেন্ট অব নর্থ বেঙ্গল

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here